Blog

ভারতের এমটিসি গ্লোবাল এওয়ার্ড ২০১৮ তে ভূষিত হলেন প্রফেসর ড. ইয়াসমীন আরা লেখা

0

গত শনিবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং তারিখ সকাল ৮:০০ টায় ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর হোটেল ফরচুন সিলেক্ট ট্রিনিটিতে শুরু হয়েছে অষ্টম ওয়ার্ল্ড এডুকেশন সামিট ২০১৮। ওয়ার্ল্ড এডুকেশন সামিট ২০১৮ তে বিকেল ৪:৩০ মিনিটে এওয়ার্ড বিতরণ পর্বে উচ্চশিক্ষা ও সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলাদেশের উত্তরা ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. ইয়াসমীন আরা লেখা কে এমটিসি গ্লোবাল এওয়ার্ড প্রদান করে সম্মানিত করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন এমটিসি গ্লোবাল এর প্রতিষ্ঠাতা এবং সভাপতি প্রফেসর ভোলানাথ দত্ত।

 

চাই ভোক্তা অধিকার আইনের প্রয়োগ ও গণসচেতনতা

0

বাংলাদেশে অধিকাংশ লোকের আয় সীমিত। যথার্থ হিসাব-নিকাশের মাধ্যমে তাদের জীবন চলে। এই সীমিত আয়ের সাহায্যে ক্রেতা যখন মানসম্মত দ্রব্যাদি ক্রয় করতে গিয়ে প্রতারণার শিকার হয় তখন জীবন পরিচালনা কষ্টকর হয়ে পড়ে। পণ্যসামগ্রীর ক্ষেত্রে প্রতারণা এমন একটি জটিল সমস্যা যা সাধারণ মানুষকে অর্থাত্ ভোক্তা বা ক্রেতাদেরকে দারুণ সংকটে নিপাতিত করে এবং অনেক সময় জীবননাশের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। ভোক্তা ক্রয়কৃত সামগ্রী ভোগ করে অর্থাত্ সে উপভোগকারী। কিন্তু এ উপভোগ করতে গিয়ে প্রায়শই দেখা যায় সে তা বিভিন্ন কারণে উপভোগ করতে পারছে না। যেমন: পণ্য উত্পাদন ও চাহিদার মধ্যে যখন কোনো প্রকার অসামঞ্জস্য ঘটে তখন দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি দেখা দেয়।

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি

0
ঈদ বা বন্যা ইত্যাদি কোনো না কোনো ইস্যু সামনে রেখে মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের অনৈতিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়ার রেওয়াজ দীর্ঘদিনের। বেশ কিছুদিন থেকে চালের বাজার অস্থির রেখে সংশ্লিষ্ট সিন্ডিকেট চক্র দেদারসে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা। এ নিয়ে সরকার কঠোর হয়ে নানা ঘোষণা দিলেও শেষ পর্যন্ত পুরোপুরি বাগে আনতে পারছে না মুনাফালোভী চাল ব্যবসায়ীদের। এখনো আগের চেয়ে বাড়তি দামে চাল কিনতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। ঈদের সময় লবণের দাম বৃদ্ধির পাশাপাশি কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির চেষ্টা চলেছে। ঊর্ধ্বমুখী জিরা, এলাচসহ রান্নার অন্যান্য মসলার দামও। সয়াবিন তেলের দামও আগের চেয়ে বেড়েছে। এর পাশাপাশি সব ধরনের সবজি ও মাছের দাম বেড়েছে। বাজারে সংকট বা ঘাটতি না থাকলেও অসাধু ব্যবসায়ীরা এ অপকর্ম অব্যাহতভাবে করে চলেছে।

Lekha Aziz

সড়ক সংস্কারে সংসদীয় কমিটির সুপারিশও উপেক্ষিত!

0

22ittefaq

চলমান বর্ষায় দেশের বিভিন্ন সড়ক, মহাসড়ক ও আঞ্চলিক সড়কের যে ক্ষতি সাধিত হয় তা তাত্ক্ষণিকভাবে মেরামতের ব্যবস্থা করে যান চলাচলের উপযোগী করার সুপারিশ করেছেন সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে মহাসড়কে ক্ষমতার অতিরিক্ত মালবোঝাই ট্রাক চলাচল করে যাতে রাস্তার ক্ষতিসাধন করতে না পারে সেদিকে কঠোর নজরদারিরও সুপারিশ করা হয়। সংসদীয় কমিটির এ সুপারিশ অত্যন্ত সময়োপযোগী ও জনকল্যাণমূলক নিঃসন্দেহে। এ ধরনের সুপারিশ অনুসরণ করা হলে চলাচলের ক্ষেত্রে জনগণের দুঃখ-দুর্দশা লাঘব হবে। কিন্তু বাস্তবতা বলছে ভিন্ন কথা। যারা এই নির্দেশনা অনুসরণ করে জনগণের জন্য চলাচল উপযোগী সড়ক গড়ে তুলতে ব্যবস্থা নেবেন তাদের মধ্যে অনেকেরই সদিচ্ছার কোনো প্রমাণ এখনো পাওয়া যাচ্ছে না।

প্রতিবন্ধীদের জন্য আরো সুযোগ প্রয়োজন

0

Image may contain: 1 person

সম্প্রতি একটি দৈনিকে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার ধামনপাড়া গ্রামের প্রতিবন্ধী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি নানা সমস্যায় জর্জরিত। স্কুলটি এখন পর্যন্ত সরকারি স্বীকৃতি না পেলেও উপজেলার একমাত্র প্রতিবন্ধী স্কুল হওয়ায় দূর-দূরান্ত থেকে অভিভাবকরা তাদের প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষা অর্জনের জন্য প্রতিদিনই এই স্কুলে নিয়ে আসছেন। এসব শিশুকে আনা-নেওয়ার জন্য নেই কোনো প্রতিবন্ধীবান্ধব যানবাহন। শিক্ষকরাও স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে এখানে নিয়মিত পাঠদান করে যাচ্ছেন।

Popular Posts